স্বপ্নের দেশ আমেরিকার প্রেসিডেন্টদের মজার কাহিনী

নূরুন্নবী আলী

  • প্রকাশিত: ৮ নভেম্বর ২০২০, ৬:৩২ অপরাহ্ণ

স্বপ্নের দেশ আমেরিকা, বিশ্বের পরাক্রমশালী রাষ্ট্র আমেরিকা ।স্বপ্নের দেশের প্রেসিডেন্টদের জীবন কাহিনী জানতে সবার মনে কৌতূহলের অন্ত নেই ।জর্জ ওয়াশিংটন থেকে শুরু করে আমেরিকার ৪৬ তম নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।মার্কিন প্রেসিডেন্টদের অনেকেই মজার মজার ঘটনা ও বিস্ময়ের জন্ম দিয়ে ইতিহাসে স্থান করে নিয়েছেন ।এদের বেশিরভাগ উচ্চ শিক্ষিত হলেও এন্ড্রো জনসন প্রথম ও একমাত্র প্রেসিডেন্ট যিনি জীবনে স্কুলে যাননি।

টমাস জেফারসন ছিলেন রাজনীতিবিদ ও আবিস্কারক, তিনি পেডোমিটার আবিষ্কার করেন যা হাঁটার দূরত্ব মাপার যন্ত্র হিসেবে ব্যবহৃত হয় ও লেজি সুসান খাবার পরিবেশনের ঘূর্ণায়মান যন্ত্র আবিষ্কার করেন । আব্রাহাম লিংকন গণতন্ত্রের আধুনিক সংজ্ঞা দেন এবং তিনিই প্রথম দাড়ি রেখেছিলেন , লিংকন আমেরিকা হতে প্রথম দাস প্রথা উচ্ছেদ করে ইতিহাসে স্বরণীয় হয়ে আছেন ।চেষ্টার আর্থার কে বিরোধীরা কানাডার লোক দাবি করলেও তিনি ছিলেন ভারমন্টে জন্ম গ্রহণকারী , যুক্তরাষ্ট্রের বাইরের কেউ আমেরিকার প্রেসিডেন্ট হতে পারবেনা সেটাই নিয়ম বা সংবিধান ছিল ! কিন্তু চেস্টারের ক্ষেত্রে তা ব্যতিক্রম ও বিশ্ববাসীর কাছে বিস্ময়ের ঘটনা ! রাদারফোর্ড বি হেস প্রথম বাস ভবনে টেলিফোন সংযোগ লাগান ।

জর্জ ওয়াশিংটন কে দুর্দান্ত প্রেসিডেন্ট বলা হয় অথচ তিনিই একমাত্র প্রেসিডেন্ট যিনি কখনো হোয়াইট হাউজে বাস করেনি । ফ্রান্সলিন পিয়ার্স প্রথম হোয়াইট হাউজে খ্রিস্টমাস ট্রি বসান । জেমস মেডিসন প্রথম লম্বা পোশাকের বদলে ট্রাউজার পরনের প্রথা চালু করেন ।বেঞ্জামিন হ্যারিসন হোয়াইট হাউজে প্রথম বৈদ্যুতিক বাতি আনলেও নিজে সুইচ টিপে জ্বালাতেন না , এ জন্য তার বাতি জ্বালানোর বেতনধারী চাকর ছিল ! প্রেসিডেন্ট টমাস জেফারসন কে বলা হয় হ্যান্ডশেকের প্রবর্তক । ভদ্র সমাজে পরিচিত জনের সাথে দেখা হলে হ্যান্ডশেকের প্রচলন করেন টমাস জেফারসন । বিল ক্লিনটন মিষ্টি হাসি দিয়ে মনিকা লিউনেস্কিদের পাগল করতেন ( বিস্তারিত বলা যাবে না ) , জর্জ বুশ ছিল যুদ্ধবাজ নেতা ।বারাক ওবামা বিশ্ববাসী কে আশাহত করেছে নানা কারণে , ২০০৯ সালে বারাক ওবামা শান্তিতে নোবেল পুরুস্কার পেয়েছিলেন ইরাক , আফগানিস্তান , লিবিয়া , সিরিয়া , সোমালিয়াতে যুদ্ধ যুদ্ধ খেলা চালিয়ে যাওয়া বারাক ওবামা কে একবার জনপ্রিয় রাজনৈতিক টক শো লেট দ্য টক এ প্রশ্ন করেছিলেন কেন তিনি শান্তিতে নোবেল পেয়েছিলেন ? উত্তরে তিনি অট্টহাসি দিয়ে বলেছিলেন আমি নিজেই জানিনা ! ডোনাল্ড ট্রাম্প যেন পুরো একটা কমেডি সিরিজ , পলিটিক্যাল কমেডিয়ান , গোয়ার্তুমি , একনায়কতন্ত্র , একগুঁয়েমি , মিথ্যার রাজা অনেক উপাধি দেওয়া যায় ! ট্রাম্প আমেরিকার গণতন্ত্রের অহংকার কে চূর্ন বিচূর্ণ করে দিয়েছেন ।তির্যক সমালোচনা হলেও ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রচারের আলোয় থাকতে পছন্দ করেন , টয়লেট টিস্যুতেও ট্রাম্পের ছবি “ হি নেভার মাইন্ড “ বেচারার এখন দুঃসময় চলছে টুইটার কোম্পানি টুইট মুছে দিচ্ছে , টিভি চ্যানেলগুলো তার বেফাঁস বক্তব্য প্রচার বন্ধ করে দিচ্ছে ! এবার বহুল আলোচিত নির্বাচনে বিজয়ী আমেরিকার ৪৬ তম প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন কি করে তা সময় বলে দেবে !

লেখক: সম্পাদকীয় প্যানেল সদস্য, স্বদেশ বিদেশ সঞ্চালক- NL24 Online TV

  • 12
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    12
    Shares

এই সম্পর্কিত আরও খবর...