ইতালির বাংলা স্কুলগুলোর কার্যক্রম ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা শীর্ষক ভার্চুয়াল মতবিনিময়

মোঃ জিয়াউর রহমান খান সোহেল, ইতালি :

  • প্রকাশিত: ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ১১:৫২ অপরাহ্ণ

প্রবাসে জন্মনেয়া নতুন প্রজন্মকে মাতৃভাষা বাংলা দেশিয় সংস্কৃতি ইতিহাস শিক্ষা দেয়ার প্রয়াসে ইতালির বিভিন্ন শহরে গড়ে তোলা হয় বাংলা স্কুল। অনেক শ্রম ত্যাগ ও বাঁধা বিপত্তির মধ্যে পরিচালিত হচ্ছে বাংলা স্কুলসমূহ।
কিভাবে এইসব প্রতিকূলতা কাটিয়ে উঠে এক স্কুল অন্য স্কুলের সাথে তাদের অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে পারে এবং ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কি হতে পারে সেই লক্ষ্যে বাংলা স্কুল মনফালকনে গরিঝিয়া ইতালি এর সন্মানিত সভাপতি নুরুল আমিন খন্দকার এর আহ্বানে সাড়া দিয়ে বাংলা স্কুল সমূহের মধ্যে ১৬,০১,২০২১ শনিবার স্হানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টায় এক ভার্চুয়াল মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় সর্বসম্মতিক্রমে বাংলা স্কুল মনফালকনে এর সভাপতি নুরুল আমিন খন্দকার কে সভাপতি নিয়োজিত করা হয় এবং বাংলা স্কুল মনফালকনে এর সাধারণ সম্পাদক মোঃজিয়াউর রহমান খান সোহেল ও কার্যকরী কমিটির সদস্য আব্দুল আজিজ কে যৌথ সঞ্চালনার দায়িত্ব দেয়া হয়।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই কোরআন থেকে তেলওয়াত করেন আবুল হোসাইন পাপ্পু এবং গীতা পাঠ করেন আতাশি শাহা।
শুভেচ্ছা বক্তব্যে নুরুল আমিন খন্দকার কয়েকটি বিষয়ের উপর আলোকপাত করেন
১) প্রাতিষ্ঠানিক সনদ অর্থাৎ বাংলাদেশের শিক্ষা বোর্ডের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে ৫ম শ্রেণির সমাপনী পরীক্ষার সনদ প্রদান (২) শিক্ষক /শিক্ষিকাদের জন্য সম্মানি ভাতা ব্যবস্হা( ৩) শিক্ষার্থীদের সৃজনশীল বিকাশের জন্য সাহিত্য, সংস্কৃতি, জাতীয় দিবস, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা , কবিতা আবৃত্তি এসব অনুষ্ঠানের জন্য বাৎসরিক অনুদান (৪) যথা সময়ে পাঠ্যপুস্তক সরবরাহ।
তারপর পর্যায়ক্রমে অংশগ্রহণকারী সকল স্কুলগুলো তাদের স্কুলের পরিচয় তুলে ধরেন।
প্রথমেই ভেনিস বাংলা স্কুলের পরিচালক সৈয়দ কামরুল ইসলাম সারোয়ার অনেক তাৎপর্য পূর্ণ কথা বলেন।তিনি বলেন ২০০৬সালে প্রতিষ্ঠিত ভেনিস বাংলা স্কুলে শুরুতে যারা পড়াশোনা করেছেন আজ তারা ইতালিয়ান বিভিন্ন ইউনিভার্সিটিতে পড়াশোনা করছেন তারফলে ঐসকল ছাত্ররা এখন স্কুলে ইতালিয়ান কমপিতি করতে সহযোগিতা করছেন।তিনি সবাইকে রাজনৈতিক দলাদলির উর্ধ্বে উঠে যে উদ্দেশ্য নিয়ে বাংলা স্কুল স্থাপিত হয়েছে সে উদ্দেশ্য থেকে যেন লাইনচ্যুত না হয়ে যায়।
সেন্তসেল্লে আদর্শ বিদ্যানিকেতন এর প্রধান শিক্ষিকা মনোয়ারা বলেন ২০১৭সালে প্রতিষ্ঠিত স্কুলটি স্ব গৌরবে পরিচালিত হচ্ছে।তিনি স্কুলের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রদূতের উপস্থিতিতে স্কুলের ৫ম শ্রেণির সমাপনী পরীক্ষার সনদ,সিলেবাস ইত্যাদি বিষয়ে কথা হয় কিন্তু পরবর্তী সময়ে আর সেগুলো বাস্তবায়িত হয়না।তিনি আশা করেন অচিরেই এইসব সমস্যার সমাধান হবে।
বাংলা স্কুল এন্ড কুলতোরাল সেন্টার পিওলতেল্ল মিলান এর সভাপতি এ,জি,এম জয়নাল এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান।২০১৮সালে প্রতিষ্ঠিত হয় স্কুলটি।তিনি আশা প্রকাশ করেন আজকের এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে স্কুল সমূহের সমস্যাগুলো যথাযথা কর্তৃপক্ষের দৃষ্টিগোচর হবে।
বাংলা আইডিয়াল স্কুল বোলজানো প্রতিষ্ঠিত হয় ২০১৭সালে।স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মুহিবুর রহমান কামাল বলেন সবাই সম্মিলিত ভাবে আমাদের সমস্যাগুলো যদি কর্তৃপক্ষের কাছে তুলে ধরি তাহলে অবশ্যই আমরা এর সমাধান পাব।তিনি বাংলা এবং ধর্মীয় শিক্ষার উপর গুরুত্বারোপ করেন। এছাও একই স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা আনুকা হোসাইন বক্তব্য রাখেন।
বাংলা একাডেমি ব্রেসসিয়া এর পরিচালক কাওসার জামান মনে করেন এই ধরনের উদ্যোগ আরো আগেই নেয়ার প্রয়োজন ছিল।
আল হেরা একাডেমি জেনোভা এর পরিচালক ফকরুল ইসলাম বলেন প্রবাসে আমরা কাজের ব্যাস্থতার মাঝে পরিবার এবং সন্তানদের থেকে অনেক দূরে চলে যাচ্ছি। তিনি আল কোরআন এর উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন সন্তান এবং পরিবারের দেখ বাল করা আমাদের অন্যতম দায়িত্ব ও কর্তব্য।স্কুলের প্রধান শিক্ষক আরিফ হাসানও বক্তব্য রাখেন।
ত্রেভেজো বাংলা স্কুল এর সভাপতি কামরুল হাসান রাসেল বলেন আজকের আলোচনায় আলোচিত বিষয় গুলো আমাদের প্রত্যেকের কাজে লাগবে।তিনি স্কুল পরিচালনায় একে অন্যের সহযোগিত হিসেবে ভূমিকা রাখবেন বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।
বাংলা স্কুল মনফালকনে এর সাধারণ সম্পাদক মোঃজিয়াউর রহমান খান সোহেল স্কুলের কার্যক্রম সম্পর্কে বলেন ২০১৬ সালে প্রতিষ্ঠিত স্কুলের একাডেমিক পাঠদান শুরু হয় ২০১৭সালে।এই স্কুলের অন্যতম সন্মানিত সভাপতি মোঃ জহিরুল ইসলাম ও প্রয়াত স্কুলের সহ সভাপতি ফরিদ খান কে শ্রদ্ধা ভরে স্বরন করেন।স্কুলে অবদান রাখার জন্য কমিউনিটির সেবকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।নিরলস ভাবে ছাত্র ছাত্রীদের পাঠদান করার জন্য শিক্ষক মন্ডলির কাছেও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তাছাড়া কার্যকরি পরিষদের সকল সদস্যের অক্লান্ত পরিশ্রমে স্কুল কার্যক্রম সুন্দরভাবে এগিয়ে নিতে তাদের ভূমিকার প্রশংসা করেন। মিলান কনস্যুলেট জেনারেল এর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তবে দাবি রাখেন যেন চাহিদার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে পাঠ্যপুস্তক দেয়া হয়।সভায় বাংলা স্কুল মনফালকনে এর সহ সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন খান উপস্থিত ছিলেন।
সবশেষে সভাপতি সমাপনী বক্তব্যে বলেন সবার মতামতের ভিত্তিতে অতিদ্রুত একটি আবেদন পত্র রাষ্ট্রদূত ও কনস্যুলেট জেনারেল ও সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের কাছে প্রেরন করবেন।সবার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

  • 115
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    115
    Shares

এই সম্পর্কিত আরও খবর...