ব্যবসার লোভ দেখিয়ে ৫০ কোটি টাকা আত্মসাৎ, মা-ছেলে গ্রেপ্তার

স্বদেশ বিদেশ ডট কম

  • প্রকাশিত: ২৩ আগস্ট ২০২২, ৯:২৩ অপরাহ্ণ

বিভিন্ন ব্যবসায় প্রলুব্ধ করে বিনিয়োগের নামে শেরপুরে ৩ শতাধিক ব্যক্তির কাছ থেকে ৫০ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১।

তারা হলেন কামরুজ্জামান সুজন (৪০) ও তার মা কামরুন নাহার হাসেম (৬১)। তারা সাজাপ্রাপ্ত আসামি। দীর্ঘদিন ধরে পলাতক ছিলেন।

মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর তুরাগের রাজউক উত্তরা অ্যাপার্টমেন্ট প্রকল্প এলাকার একটি বাসা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

র‌্যাব-১ থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, শেরপুরে বাবর অ্যান্ড কোম্পানি (প্রা.) লিমিটেড নামের একটি প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান। তার নামে ৩২টি গ্রেপ্তারি পরোয়ানার পাশাপাশি তিনটি সাজার পরোয়ানা রয়েছে। তিনটি মামলায় সাজা হওয়ায় তার মা কামরুন নাহারের বিরুদ্ধেও আদালতের গ্রেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাবর অ্যান্ড কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন কামরুজ্জামানের বাবা আবুল হাসেম। এ প্রতিষ্ঠানের নামে ৩৬ একর জমির ওপর দুটি অটো ব্রিকফিল্ড, তিনটি ফিলিং স্টেশন, একটি অটো রাইস মিল, পোলট্রি ফার্মসহ একাধিক প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এসব ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগ করে লাভবান হওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ অগ্রিম গ্রহণ করতেন মা ও ছেলে।

একপর্যায়ে কামরুজ্জামান ব্যবসার জন্য অগ্রিম ইট বিক্রির ৪৫ কোটি টাকা ও চাল বিক্রির ৫ কোটি ৫০ লাখ টাকা নিয়ে ঢাকায় পালিয়ে আসেন। এরপর তাকে গ্রেপ্তারের দাবিতে সাধারণ মানুষ মানববন্ধন করাসহ শেরপুরের জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের কাছে স্মারকলিপি দেন। পাশাপাশি তারা আদালতে একাধিক মামলা করেন। আদালত কামরুজ্জামানের বিরুদ্ধে ৩৫টি ও তার মায়ের বিরুদ্ধে ৩টি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

ভুক্তভোগীরা র‌্যাব-১ এ একটি অভিযোগ করেন ও আইনি সহায়তা চান। এর পরিপ্রেক্ষিতেই ছায়া তদন্ত করে ওই দুজনকে গ্রেপ্তার করার কথা জানায় র‌্যাব।

এই সম্পর্কিত আরও খবর...