সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বন্ধনঃ শোপিয়ানে নিহত কাশ্মীরি পণ্ডিতের পরিবার মুসলিম প্রতিবেশীর কাছে রেখে গেলেন বাড়ির চাবি

মতিয়ার চৌধুরী, লন্ডন

  • প্রকাশিত: ১৮ অক্টোবর ২০২২, ৫:১২ অপরাহ্ণ

১৫ অক্টোবর শনিবার কাশ্মিরের শোপিয়ানে দখা মিললো সাম্প্রদায়িক সম্পৃতির এক বিরল ঘটনা। সম্প্রতি জঙ্গি হামলায় নিহত হিন্দুপন্ডিত পুরান ভাটের পরিবারের সদস্যরা তাদের বাড়ির চাবি তাদের প্রতিবেশী একজন মুসলিম মহিলার কাছে রেখে এলাকা ছেড়ে গেছেন। ঘটনাস্থলে উপস্থিত পণ্ডিতরা জানান, স্থানীয় মুসলমানদের কাছ থেকে ভালোবাসা ও সমর্থন পেয়েছেন তা ভূলার মত নয়। একজন বয়স্ক হিন্দু পণ্ডিত বলেন, “আমরা এখানে মুসলমানদের সাথে কতটা ঘনিষ্ঠ তা বুঝাযায় পুরনের পরিবার এবং মুসলিমদের মাঝে আন্তরিকতা দেখে। তাদের বাড়ির চাবি হিন্দুদের কাছে না রেখে স্থানীয় একজন মুসলিম মহিলা প্রতিবেশীর কাছে রেখে একালা ছেড়ে চলে গেলেন। নিহত পন্ডিতের শেষকৃত্যের সময় তার ভগ্নিপতি তাদের সমস্ত জিনিসপত্রের চাবি স্থানীয় মুসলিম মহিলা ফিদৌসার কাছে হস্তান্তর করেন।

ফিরদৌসা, শ্রীনগরের বাসিন্দা এবং শোপিয়ানের চৌধুরী গুন্ডে বিবাহিত একজন মহিলা সংবাদমাধ্যমকে বলেন, তিনি দরিদ্র পরিবারের সদস্য এবং পুরান ভাটের প্রতিবেশী ৷ “পুরান ভাট আমার সাথে বোনের মতো আচরণ করত এবং আমাকে আমার সন্তানদের শিক্ষা দিতে উৎসাহিত করতেন। তারা তাদের বাড়ির চাবি আমাকে বিশ্বাস করে রেখে গেছেন আমি কখনই বিশ্বাস ভঙ্গ করব না,” তিনি পুরান ভাটের হত্যার নিন্দা জানান এবং সন্ত্রাসীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্থি দাবি করেন। এলাকার মুসলিম প্রতিবেশীরা নিহত পন্ডিতকে একজন সৎ ব্যক্তি হিসাবে বর্ণনা করেছেন, তারা বলেন তিনি সব সময় আমাদের সহযোগীতা করতেন। তার ঋণ আমরা কোন দিনই শোধ করতে পারবনা। পন্ডিতের পরিবার এলাকা ছেড়ে চলে যাওয়াতে মুসলিম প্রতিবেশীরা কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

এই সম্পর্কিত আরও খবর...