মোংলা বন্দরে রাজস্ব আয়ে রেকর্ড

স্বদেশ বিদেশ ডট কম

  • প্রকাশিত: ১০ জুন ২০২১, ১১:৫৫ পূর্বাহ্ণ

দেশের দ্বিতীয় সামুদ্রিক বন্দর মোংলায় একদিকে যেমন বাণিজ্যিক জাহাজের আগমন বেড়েছে অন্যদিকে বেড়েছে রাজস্ব আয়। করোনাকালীন দেশের অন্যান্য বন্দরের কার্যক্রম কিছুটা স্থবির থাকলেও মোংলা বন্দরের অপারেশনাল কার্যক্রম ২৪ ঘণ্টাই সচল রাখা হয়েছে।

বন্দর কর্তৃপক্ষের নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় স্বাস্থ্যবিধি মেনেই পরিচালিত হয়েছে বন্দরের কার্যক্রম, যা এখনও অব্যাহত রয়েছে। সারাদেশে করোনার সংক্রমণ থাকলেও বন্দরের আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য কোনো প্রভাবই পড়েনি। গত ৩ বছরে বন্দরে মোট ১ লাখ ৬০ হাজার ১৯৭ টিইউজ কন্টেইনার হ্যান্ডলিং সম্পন্ন করা হয়েছে। ২০১৯- ২০ অর্থবছরে মোংলা বন্দরে মোট রিকন্ডিশন্ড গাড়ি আমদানি করা হয়েছে ৫৯ হাজার ৪৭৬ টি। একই বছরে মোট কার্গো হ্যান্ডলিং সম্পন্ন হয়েছে মোট ১ কোটি ১০ লাখ ৩৭ হাজার ২০৯ মে. টন।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের প্রধান অর্থ ও হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা মোঃ সিদ্দিকুর রহমান জানান, ২০১৮- ১৯ অর্থবছরে মোংলা বন্দরের রাজস্ব আয় হয়েছিল ৩১৫ কোটি ৯৯ লাখ ১৫ হাজার টাকা, ২০১৯ – ২০ অর্থবছরে ৩৩৮ কোটি ১৯ লাখ ১৯ টাকা আয় করেছে মোংলা বন্দর। আমরা আশা করছি, চলতি অর্থবছর শেষে এ বন্দরের রাজস্ব আয় ৩৪০ কোটিতে পৌঁছাবে।

বন্দরের পরিচালক (ট্রাফিক) মো. মোস্তফা কামাল জানান, চলতি অর্থবছরের ৩১ মে পর্যন্ত মোংলা বন্দরে মোট জাহাজ এসেছে ৯১৩ টি যা বন্দর প্রতিষ্ঠার ইতিহাসে একটি নতুন মাইলফলক। আমাদের প্রত্যাশা চলতি অর্থবছরে বন্দরে ১ হাজার জাহাজ আসবে। আর যদি সেটি সম্ভব না হয় তবে আশা রাখছি ৯৭০-৮০ টির মত জাহাজ আগমনের রেকর্ড আমরা দেখাতে পারবো।

বন্দরের উপসচিব মো. মাকরুজ্জামান জানান, ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রথম ৬ মাসে মোংলা বন্দরে জাহাজ এসেছে ৫১৯ টি। ২০২১ সালের জানুয়ারি মাসে বন্দরে জাহাজ আগমনের সংখ্যা ছিল ৯৮ টি, ফেব্রুয়ারিতে ৮৫ টি, মার্চে ৭০ টি, এপ্রিলে ৮৬ টি এবং মে মাসে এসেছে ৫৫ টি। সবমিলিয়ে চলতি অর্থবছরের ১১ মাসে মোট জাহাজ আগমনের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯১৩টি। জুন মাসের ৭ তারিখ পর্যন্ত বন্দরে জাহাজ ভিড়েছে ১৩ টি।

এবিষয়ে জানতে চাইলে বন্দরের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল মোহাম্মদ মুসা জানান, করোনার ঝুঁকি মাথায় নিয়েও আমরা বন্দরের কার্যক্রম চালু রেখেছি। বন্দরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে দাপ্তরিক কার্যক্রমের পাশাপাশি অপারেশনাল কার্যক্রমে শ্রম দিয়ে এ প্রতিষ্ঠানকে এগিয়ে নিতে সহায়তা করেছে। সবমিলিয়ে সকলের আন্তরিকতার কারণে মোংলা বন্দরের বহুমুখী অর্জন সম্ভব হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই সম্পর্কিত আরও খবর...