বিএনপির স্থায়ী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত

স্বদেশ বিদেশ ডট কম

  • প্রকাশিত: ৪ জানুয়ারি ২০২২, ৫:১৯ অপরাহ্ণ

বিএনপি’র জাতীয় স্থায়ী কমিটির ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় সভাপতিত্ব করেন বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

সোমবার (৩ জানুয়ারি) সন্ধ্যা ৭.৩০ টায় বিএনপি-এর জাতীয় স্থায়ী কমিটির ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সদস্যবৃন্দকে ইংরেজী নববর্ষের শুভেচ্ছা জানান। সভায় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যরিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আব্দুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু।

সভায় বিগত ২৭ ডিসেম্বর ২০২১ অনুষ্ঠিত জাতীয় স্থায়ী কমিটির ভার্চুয়াল সভায় গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহ পঠিত ও অনুমোদিত হয়। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দলের চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার শারীরিক পরিস্থিতি সম্পর্কে সদস্যবৃন্দকে অবহিত করেন। খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তির জন্য দোয়া চাওয়া হয়।

সম্প্রতি দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার জন্য বিদেশে প্রেরণের দাবীতে দেশব্যপী কর্মসূচীর আওতায় গত ২৯ ডিসেম্বর সিরাজগঞ্জ বিএনপি’র শান্তিপূর্ণ কর্মসূচী বানচালের উদ্দ্যেশে আওয়ামী সন্ত্রাসীদের দফায় দফায় আক্রমণ, নেতা-কর্মী ও সাধারণ মানুষের ওপরে অবৈধ অস্ত্র নিয়ে গুলি বর্ষণ, নেতা-কর্মীদের মারাত্মকভাবে আহত করার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়।

প্রকাশ্যে অগ্নেয়াস্ত্রসহ আওয়ামী সন্ত্রাসীদের ছবি জাতীয় দৈনিক ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত হবার পরও তাদের বিরুদ্ধে কোনও মামলা, গ্রেপ্তার না করে বিএনপির নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের, গ্রেপ্তার এবং বাড়ি বাড়ি তল্লাশী করার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়। অবিলম্বে চিহ্নিত আওয়ামী সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ এবং বিএনপি নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও গ্রেপ্তরকৃতদের মুক্তি দাবী করা হয়।

আওয়ামী সরকার ইতি পূর্বে হবিগঞ্জ, পটুয়াখালীসহ সারাদেশে একই কায়দায় নিজেরা হামলা করে বিএনপি এর নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের ও বেশ কিছু নেতৃবৃন্দকে গ্রেপ্তার করেছে। সভায় অবিলম্বে সকল মামলা প্রত্যাহার ও গ্রেপ্তারকৃতদের মুক্তির দাবী জানানো হয়।

বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে সুচিকিৎসার জন্য প্রেরণের দাবীতে চলমান আন্দোলনের অংশ হিসাবে অবশিষ্ট জেলা গুলিতে আগামী ১২ জানুয়ারি ২০২২ থেকে আরম্ভ করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।এ বিষয়ে বিস্তারিত কর্মসূচী প্রণয়নের জন্য মহাসচিবকে দায়িত্ব প্রদান করা হয়।

সভা শেষে সভাপতি সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই সম্পর্কিত আরও খবর...