বিনা ভোটে বিজয়ী হচ্ছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা

স্বদেশ বিদেশ ডট কম

  • প্রকাশিত: ১৪ জানুয়ারি ২০২২, ৩:০৩ অপরাহ্ণ

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) মধ্যে সব ইউপিতেই আওয়ামী লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীরা বিনা ভোটে বিজয়ী হতে চলেছেন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মো.মঞ্জুরুল আলম জানিয়েছেন, একাধিক প্রার্থী না থাকায় মনোহরগঞ্জের কোন ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। শুক্রবার তাদেরকে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হবে।

গত ৩ জানুয়ারি মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষদিনে ১১টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনোনীত একক প্রার্থীরা মনোনয়ন জমা দেন। আর বাকি চারটি ইউনিয়নে একাধিক প্রার্থী থাকলেও বৃহস্পতিবার মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষদিনে আওয়ামী লীগের ছাড়া সকল প্রার্থীরাই তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার ৫ জন প্রার্থী তাদের মনোনয়ন তুলে নিলে উপজেলার বাইশগাঁও ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের আলমগীর হোসেন, লক্ষ্মণপুরে মহিন উদ্দিন চৌধুরী, হাসনাবাদে কামাল হোসেন এবং সরসপুরে আবদুল মান্নানের বিজয় নিশ্চিত হয়ে যায়।

এর আগে গত ৩ জানুয়ারি একক মনোনয়নপত্র জমা দেয়া আওয়ামী লীগের মনোনীত ওই সাত প্রার্থী হলেন, উপজেলার ঝলম দক্ষিণ ইউনিয়নে আশিকুর রহমান হাওলাদার, নাথেরপেটুয়া ইউনিয়নে আবদুল মান্নান চৌধুরী, বিপুলাসার ইউনিয়নে ইকবাল মাহমুদ, ঝলম উত্তর ইউনিয়নে আবদুল মজিদ খান রাজু, উত্তর হাওলা ইউনিয়নে আবদুল হান্নান হিরণ, খিলা ইউনিয়নে আল আমিন ভূঁইয়া ও মৈশাতুয়া ইউনিয়নে মফিজুল রহমান।

এদিকে শুধু চেয়ারম্যান পদেই নয় মনোহরগঞ্জ উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের মধ্যে শুধুমাত্র বিপুলাসার ইউনিয়নে ৯টি সাধারণ ওয়ার্ড এবং তিনটি সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এছাড়া উপজেলার মৈশাতুয়া ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ সদস্য পদে এবং ঝলম উত্তর ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

আগামী ৩১ জানুয়ারি এসব ওয়ার্ডে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট গ্রহণ হবে। উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে ৯৯টি পদের মধ্যে বাকি ৮৮ জন সাধারণ সদস্য এবং ৩৩ পদের মধ্যে ৩০ জন সংরক্ষিত নারী সদস্য বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন।

বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এ প্রসঙ্গে জানতে যোগাযোগ করা হলেও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো.নাজির হোসেন মিয়ার সরকারি মোবাইল ফোন নম্বর বন্ধ পাওয়া গেছে।

জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মো.মঞ্জুরুল আলম বলেন, একাধিক প্রার্থী না থাকায় মনোহরগঞ্জের কোন ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। তিনটি ইউনিয়নের ১১টি সদস্য পদে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। শুক্রবার ১১ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ বাকিদের বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হবে।

উল্লেখ্য, গত ১৮ ডিসেম্বর ষষ্ঠ ধাপে মনোহরগঞ্জ উপজেলার ১১টি ইউপির নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। তফসিল অনুযায়ী গত ৩ জানুয়ারি মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ছিলো। ৬ জানুয়ারি মনোনয়নপত্র বাছাই হয়। ১৩ জানুয়ারি প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ছিলো।

আগামী ৩১ জানুয়ারি ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট গ্রহণ হওয়ার কথা। মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিনে ১১টি ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে ১৬ জন, সংরক্ষিত মহিলা সদস্যপদে ৪০ জন ও সাধারণ সদস্যপদে ১৩৮ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এই সম্পর্কিত আরও খবর...