৯ অক্টোবর ভিক্টোরিয়া পার্কে ১০ মুসলিম চ্যারিটি রান : মিডিয়া লঞ্চিং অনুষ্ঠানে নাম রেজিস্ট্রেশনের আহবান

স্বদেশ বিদেশ ডট কম

  • প্রকাশিত: ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ৩:৪৯ অপরাহ্ণ

আগামী ৯ অক্টোবর রোববার পূর্ব লন্ডনের ভিক্টোরিয়া পার্কে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ১০ মুসলিম চ্যারিটি রান। এতে ইস্ট লন্ডন মসজিদ সহ ৪০টি চ্যারিটি সংস্থা অংশগ্রহণ করবে। এ উপলক্ষে ৯ সেপ্টেম্বর শুক্রবার বিকেলে ইস্ট লন্ডন মসজিদের মারিয়াম সেন্টারে এক মিডিয়া লঞ্চিং অনুষ্ঠিত হয়। এতে চ্যারিটি রানের ব্যাপারে বিস্তারিত তথ্যাদি তুলে ধরা হয়।
ইস্ট লন্ডন মসজিদের ফাইন্যান্স এন্ড এনগেইজমেন্ট ডাইরেক্টর দেলওয়ার খানের পরিচালনায় এতে বক্তব্য রাখেন মসজিদের চেয়ারম্যান আইয়ুব খান ও ফান্ডরাইজিং ম্যানেজার তজম্মুল আলী। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের ভাইস প্রেসিডেন্ট রহমত আলী। পার্টনার ও স্পনসরদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আল খায়ের ফাউন্ডেশনের স্পনসরিং এন্ড চ্যালেঞ্জিং কো-অর্ডিনেটর সৈয়দ তাহির নাসের, অটোম্যান ডোনারের ডাইরেক্টর আবদাল আহমদ, মুসলিম হেলপ এর চ্যারিটি কো-অর্ডিনেটর আখলাকুর রহমান ও স্টেপনী শাহজালাল মসজিদের ডেভেলপমেন্ট সেক্রেটারি ফুল মিয়া।
মিডিয়া লঞ্চিংয়ে দেলওয়ার খান বলেন, প্রতি বছর সামার এলেই কমিউনিটির মানুষ মুসলিম চ্যারিটি রান-এর অপেক্ষায় থাকেন। কারণ এই দিনটিতে তাঁরা খোলা মাঠে একত্রে মিলিত হওয়ার সুযোগ পান। দৌঁড়ে, হেঁটে, প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে আনন্দ উপভোগ করে থাকেন। ২০১২ সালে আমরা যখন ‘রান ফর ইউর মস্ক’ কর্মসূচি শুরু করি তখন ভাবিনি এটা এতদূর এগিয়ে যাবে। কিন্তু নাহ- এক বছর, দুই বছর করে এবার এই কর্মসূচি ১০ম বর্ষে পা রাখলো। এটি হয়ে গেছে বছরের একটি সেরা কর্মসূচি। তবে কোভিড ১৯ মহামারির কারণে ২০২০ সালে আমরা রান ফর ইউর মস্ক আয়োজন করতে পারিনি। নতুবা এ বছরের চ্যারিটি রান হতো  ১১তম আয়োজন।

এই কর্মসূচির লক্ষ্য শুধু ফান্ডরেইজিং নয়, কমিউনিটির মানুষকে স্বাস্থ্যসচেতন করাও একটি অন্যতম উদ্দেশ্য। আমরা এ ক্ষেত্রে সফল হয়েছি। অনেকেরই এই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে নিয়মিত দৌঁড়াদৌড়ির অভ্যেস গড়ে ওঠেছে। শুরুতে একসাথে ৫ কিলোমিটার দৌড়ানোর পর পরবর্তীতে অভ্যাস করে নিয়েছেন। এখন প্রতিদিনই সকালে নিয়মিত দৌড়েন এবং হাঁটেন। মানুষের মধ্যে শারিরীক ব্যায়ামের অভ্যাস গড়ে তোলার ক্ষেত্রে মুসলিম চ্যারিটি রান সত্যিকার অর্থে একটি সফল কর্মসূচি। দিনদিনই এই কর্মসূচি আরো বড় হচ্ছে।
তিনি বলেন, বিগত ৯টি চ্যারিটি রানের মাধ্যমে ইস্ট লন্ডন মসজিদ সহ বিভিন্ন চ্যারিটি সংস্থা প্রায় ১ মিলিয়ন পাউন্ড সংগ্রহ করতে সক্ষম হয়েছে। শুধু গত বছর নবম মুসলিম চ্যারিটি রানের মাধ্যমে বিভিন্ন চ্যারিটি সংস্থা ১ লাখ ২১ হাজার পাউন্ড সংগ্রহ করেছে। গত ৯ বছরে এই চ্যারিটি রানে ৬ হাজারেরও বেশি মানুষ অংশগ্রহণ করেছে। ৪০টির বেশি চ্যারিটি সংস্থা আমাদের সাথে যুক্ত হয়েছে এবং শতাধিক মানুষ মুসলিম চ্যারিটি রানে দৌড় শুরু করে পরবর্তীতে বৃটেনের মূলধারার ম্যারাথনে অংশগ্রহণের গৌরব অর্জন করেছে। তাছাড়া অনেকেই স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অনুষ্ঠিত বিভিন্ন চ্যারিটি রানে অংশগ্রহণ করছে। এটা আমাদের একটি বড় সাফল্য।
এবারের মুসলিম চ্যারিটি রানে পার্টনার হিসেবে রয়েছে লন্ডন ম্যারাথন, লঞ্চগুড, আল খায়ের ফাউন্ডেশন, হিউম্যান অ্যাপিল ফাউন্ডেশন ও রমফোর্ড ট্রাস্ট লিমিটেড। স্পনসর হিসেবে রয়েছে ইসলামি রিলিফ, ফারানী টেইলর সলিসিটর্স, লনলী অওফান্স, গ্লোবাল রিলিফ ট্রাস্ট, লন্ডন সুন্নাহ সারকামসেশন, অটোম্যান ডোনার, মুনতাদা এইড, ১৩-রিভার্স ট্রাস্ট, হেলথ ইয়াতিম, এরতুরুল মঙ্গাল রেস্টরেন্ট, হিউম্যান অ্যাপিল, মুসলিম এইড, ওয়াহেদ ইনভেস্ট ও সারকার সলিসিটর্স। তাছাড়া হেলথ স্টল সহযোগিতায় রয়েছে ম্যাটার্নেল এইড অ্যাসোসিয়েশন।
আর অংশগ্রহণকারি ৪০টি চ্যারিটি সংগঠন হচ্ছে- ইস্ট লন্ডন মসজিদ, আইএফ চ্যারিটি, গ্লোবাল ডেভেলাপমেন্ট ফাউন্ডেশন, ইয়াসিন ইয়ুথ, স্টেপনী শাহজালাল মস্ক, হিউম্যান অ্যাপিল, হিউম্যান এইড, মুসলিম এইড, লাইম হাউজ মসজিদ, ইসলামিক রিলিফ, মুসলিম চ্যারিটি, সিনসিয়ার গিভিং, হেলপ ইয়াতিম, মাইল এন্ড বেঙ্গলী মুসলিম এসোসিয়েশন, লনলী অরফ্যান, হিউম্যান রিলিফ ফাউন্ডেশন, গ্লোবাল রিলিফ ট্রাস্ট, ইস্ট আফ্রিকান এডুকেশন ফাউন্ডেশন, ডিসকোভার ইসলাম, লন্ডন ইস্ট একাডেমি এন্ড আল-মিজান স্কল, ইডেন কেয়ার ইউকে, লুইশাম ইসলামি সেন্টার, একশন ফর হিউমেনিটি, মুসলিম হ্যান্ডস, মুনতাদা এইড, হিউম্যান কেয়ার ইনিশিয়েটিভ, ইন্সপায়ার্ড বাই ইসলাম, সালাম চ্যারিটি, হাগস, ইব্রাহিম কলেজ, মুসলিম হেলপ, ওয়ান ন্যাশন, ওয়ান উম্মাহ, মুসলিম কমিউনিটি এসোসিয়েশন, সাবিল, ম্যাটার্নেল এইড অ্যাসোসিয়েশন, আশফোর্ড মুসলিম অ্যাসোসিয়েশন, হিয়ার ফর ইয়ুথ, হান্সলো মুসলিম সেন্টার ও গ্লোবাল এই ট্রাস্ট।
৬টি ক্যাটাগরিতে অংশগ্রহণের সুযোগ থাকবে। অনুর্ধ ১২ বছর, ১৩ থেকে ১৭ বছর, ১৮ থেকে ৩০ বছর, ৩২ থেকে ৪৫ বছর, ৪৬ থেকে ৫৫ বছর এবং ৫৬ ও ততোর্ধ বয়স ক্যাটাগরি। ১২ বছর বয়সের নিচের মেয়েরাও অংশগ্রহণ করতে পারবে। এতে বিজয়ীদের মধ্যে আকর্ষনীয় পুরষ্কার প্রদান করা হবে। দৌড়ে অংশগ্রহণে আগ্রহীরা www.muslimcharityrun.co.uk ওয়েবসাইট ভিজিট অথবা ০২০ ৭৬৫০ ৩০০৮ নাম্বারে ফোন করে তাঁদের নাম রেজিষ্ট্রেশন করতে পারবেন।
ইস্ট লন্ডন মসজিদের চেয়ারম্যান আইয়ুব খান কমিউনিটির ছেলে-বুড়ো-যুবক সর্বস্তরের মানুষকে মুসলিম চ্যারিটি রানে অংশগ্রহণের আহবান জানান। তিনি বলেন, কমিউনিটির মানুষের জন্য এটি একটি বিশেষ দিন। আসুন, সকলে একসাথে মিলে ভালো কাজের জন্য ফান্ডরেইজ করি এবং দিনটিকে সপরিবারে উপভোগ করি।

 

এই সম্পর্কিত আরও খবর...