কিয়েভে আবারও ড্রোন হামলা চালিয়েছে রাশিয়া

স্বদেশ বিদেশ ডট কম

  • প্রকাশিত: ১৪ ডিসেম্বর ২০২২, ৭:১৭ অপরাহ্ণ

ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে বুধবার ভোরে আবারও ড্রোন হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। এসময় কিয়েভের কেন্দ্রস্থলে তিনটি বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গেছে। তবে পাল্টা ব্যবস্থা নিয়েছে ইউক্রেনীয় বাহিনী, এক ডজনেরও বেশি রুশ ড্রোন গুলি করে ভূপাতিত করার দাবি করেছেন ইউক্রেনের কর্মকর্তারা।

অক্টোবর থেকে রাশিয়া অবিরত ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন দিয়ে ইউক্রেনের জ্বালানি অবকাঠামোকে লক্ষ্যবস্তু করেছে। কিন্তু ইউক্রেনের ন্যাশনাল এনার্জি গ্রিড ম্যানেজার ইউক্রেনারগো বলেছে, বুধবারের হামলায় কোনও জ্বালানি অবকাঠামোর ক্ষতি করেনি।

কিইভের গভর্নর ওলেক্সি কুলেবা বুধবার সর্বশেষ ড্রোন হামলার মাধ্যমে রাশিয়াকে ইউক্রেনে শক্তি সন্ত্রাস অব্যাহত রাখার জন্য অভিযুক্ত করেছেন।

গভর্নর কুলেবা বলেছেন, রাশিয়ার ড্রোনগুলো শহরের একটি প্রশাসনিক অফিস এবং চারটি আবাসিক ভবনে আঘাত করেছে। তবে শহরের জরুরি পরিষেবাগুলোর একজন মুখপাত্র ইউক্রেনের মিডিয়াকে বলেছেন, বুধবারের হামলায় কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

এদিকে, একটি সংক্ষিপ্ত ভিডিও বার্তায় ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি জানিয়েছেন, ইউক্রেনের বাহিনী ইরানের তৈরি ১৩টি শাহেদ ড্রোন গুলি করে ভূপাতিত করেছে। বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার প্রশংসা করে জেলেনস্কি বলেছেন, বিমান প্রতিরক্ষা ভাল কাজ করেছে, আমি গর্বিত।

অন্যদিকে, ইউক্রেনের জন্য অত্যাধুনিক প্যাট্রিয়ট আকাশ প্রতিরক্ষাব্যবস্থা পাঠানোর পরিকল্পনা চূড়ান্ত করছে যুক্তরাষ্ট্র।কিয়েভের পক্ষ থেকে জরুরি ভিত্তিতে অনুরোধের পর এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে বলে মার্কিন কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, রাশিয়া সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে ইউক্রেনে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা বাড়িয়েছে। মূলত, ক্রিমিয়া উপদ্বীপের সাথে রাশিয়াকে সংযুক্তকারী ইউরোপের বৃহত্তম রেল ও সড়ক সেতুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার প্রতিশোধ হিসেবে গত ৮ অক্টোবর থেকে ইউক্রেনের জ্বালানি নেটওয়ার্ক ও অবকাঠামোগুলোতে আক্রমণ শুরু করে রাশিয়া। এর মধ্যে গত মাসে অধিকৃত ক্রিমিয়া উপদ্বীপের বৃহত্তম বন্দরনগরী সেভাস্তোপলের কাছে কৃষ্ণ সাগরে রুশ নৌবহরে ড্রোন হামলার ঘটনা ঘটে। এরপর বেশ কয়েক দফায় ইউক্রেনের জ্বালানি স্থাপনা লক্ষ্য করে রাশিয়া কার্যত ক্ষেপণাস্ত্র বৃষ্টি চালায়।

বিবিসি বলছে, যুদ্ধ শুরুর পর নভেম্বরের শেষ সপ্তাহে ইউক্রেনে সবচেয়ে ভারী বিমান হামলা চালায় রাশিয়া। ওই হামলায়ও ইউক্রেনীয় জ্বালানি অবকাঠামো এবং বেসামরিক ভবনগুলোকে লক্ষ্যবস্তু করা হয়েছিলো।

সূত্র: বিবিসি, আলজাজিরা

এই সম্পর্কিত আরও খবর...